আর্কাইভ  মঙ্গলবার ● ১৮ জানুয়ারী ২০২২ ● ৫ মাঘ ১৪২৮
আর্কাইভ   মঙ্গলবার ● ১৮ জানুয়ারী ২০২২

কুড়িগ্রামে চেয়ারম্যান প্রার্থীর পোস্টারে এরশাদের ছবি

বৃহস্পতিবার, ১৬ ডিসেম্বর ২০২১, দুপুর ০৪:৫৭

সাইফুর রহমান শামীম, কুড়িগ্রাম: চতুর্থ ধাপের ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে কুড়িগ্রামের উলিপুর ও রাজারহাট উপজেলার বিশটি ইউনিয়নে নির্বাচনি প্রচারণা জমে উঠেছে। আগামী ২৬ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিতব্য এ নির্বাচনকে ঘিরে সকাল থেকে গভীর রাত পর্যন্ত চলছে প্রচারণা। তবে নির্বাচনি এ প্রচারণায় আচরণবিধি লঙ্ঘনের হিড়িক পড়েছে।

 পোস্টার-ব্যানার সাঁটানোসহ শব্দযন্ত্রের (মাইক) ব্যবহার করা হচ্ছে। এমন পরিস্থিতিতে জেলার উলিপুর উপজেলার তবকপুর ইউনিয়নের জাতীয় পার্টি মনোনীত এক চেয়ারম্যান প্রার্থীর পোস্টারে আচরণবিধি লঙ্ঘন করে দলের প্রয়াত প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের ছবি ব্যবহার করতে দেখা গেছে।

সরেজমিন দেখা গেছে, উলিপুরের তবকপুর ইউনিয়নের জাতীয় পার্টি মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থী মো. মাহমুদার রহমান আচরণবিধি লঙ্ঘন করে পোস্টার ও ফেস্টুনে নিজ ছবির সঙ্গে বর্তমান দলীয় প্রধানের ছবির পরিবর্তে দলের প্রয়াত প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের ছবি ছাপিয়েছেন। আবার সেসব পোস্টার ও ছবি আচরণ বিধির তোয়াক্কা না করে বিভিন্ন গাছ, বৈদ্যুতিক খুঁটি এমনকি বসতবাড়িসহ বিভিন্ন স্থাপনার দেওয়ালে লাগিয়েছেন।

জানতে চাইলে মাহমুদার রহমান বলেন, ‘এরশাদ (হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ) সাহেবের ছবি ছাপানোর আগে আমি রিটার্নিং কর্মকর্তার কাছে অনুমতি নিয়ে পোস্টার ছাপিয়েছি। আমি কোনও আচরণবিধি লঙ্ঘন করিনি।’

ইউনিয়ন জুড়ে প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীদের আচরণবিধি লঙ্ঘনের বিষেয়ে জানতে চাইলে তবকপুর ইউনিয়নের দায়িত্বে থাকা রিটার্নিং কর্মকর্তা ও উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা মো. নাদিরুজ্জামান বলেন, ‘আমাদের এ বিষয়ে কেউ কোনও অভিযোগ করেননি। এ নিয়ে প্রতিদ্বন্দ্বী কোনও প্রার্থীকে অভিযোগ করতে হবে।’

ইউনিয়নজুড়ে আচরণবিধি লঙ্ঘনের এমন চিত্র দৃশ্যমান থাকলেও অভিযোগ করতে হবে কেন, এমন প্রশ্নে রিটার্নিং কর্মকর্তা বলেন, ‘কাউকে অভিযোগ করতে হবে। তারপরও আপনি যেহেতু বললেন আমরা বিষয়টি খতিয়ে দেখবো।’

উল্লেখ্য, ইউনিয়ন পরিষদ (নির্বাচন আচরণ) বিধিমালা, ২০১৬-এর ৮(৫) ধারায় বলা হয়েছে, নির্বাচনি প্রচারণায় কোনও প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী নিজ ছবি ও প্রতীক ব্যতীত অন্য কারও নাম, ছবি বা প্রতীক ছাপাতে বা ব্যবহার করতে পারবেন না। তবে শর্ত থাকে যে, প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী কোনও রাজনৈতিক দলের মনোনীত হলে সে ক্ষেত্রে তিনি কেবল তার দলের বর্তমান দলীয় প্রধানের ছবি পোস্টারে বা লিফলেটে ছাপাতে পারবেন।

একই বিধিমালার ৮(৮) উপধারায় বলা হয়েছে, কোনও প্রার্থী বা প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী বা তার পক্ষে কোনও ব্যক্তি, সংস্থা বা প্রতিষ্ঠান বা রাজনৈতিক দল নির্বাচনি এলাকায় অবস্থিত দেয়াল বা যানবাহনে পোস্টার লিফলেট বা হ্যান্ডবিল লাগাতে পারবেন না। তবে ভোটকেন্দ্র ব্যতীত নির্বাচনি এলাকার যেকোনও স্থানে পোস্টার ঝুলিয়ে রাখা যাবে।

মন্তব্য করুন


Link copied