আর্কাইভ  সোমবার ● ২৪ জানুয়ারী ২০২২ ● ১১ মাঘ ১৪২৮
আর্কাইভ   সোমবার ● ২৪ জানুয়ারী ২০২২

দিনাজপুরে জেনারেল হাসপাতাল থেকে চুরি হওয়া নবজাতক উদ্ধার

মঙ্গলবার, ৪ জানুয়ারী ২০২২, দুপুর ০৩:৫১

শাহ্ আলম শাহী,দিনাজপুর থেকে: দিনাজপুর ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতাল থেকে চুরি হওয়া নবজাতকটি অবশেষে ফিল্মি কায়দায় উদ্ধার করা হয়েছে। চুরি’র ২৪ ঘণ্টার মধ্যে শিশুটি উদ্ধার করে প্রসূতি মায়ের কাছে ফেরত দিয়েছে পুলিশ। হাসপাতাল থেকে নবজাতক চুরি’র ঘটনার সাথে জড়িত শিউলী বেগম (২২) নামে এক নারীকেও পুলিশ আটক করেছে। এ ঘটনায় ব্যাপক তোলপাড় চলছে।
দিনাজপুরের চিরিরবন্দর থানার মাহাদানি গ্রামের দিনমজুর আব্দুল লতিফের স্ত্রী জাহেদা বেগম প্রসব ব্যথা নিয়ে রোববার দুপুরে ভর্তি হন দিনাজপুর জেনারেল হাসপাতালে। সোমবার সকালে একটি কন্যা শিশুর জন্ম দেন তিনি। গতকাল দুপুরের পর জাহেদা তার বোন হাজেরার কাছে নবজাতককে রেখে শৌচাগারে যান। সে সময় অপরিচিত এক নারী নবজাতককে তার কাছে রেখে হাজেরার বোনকে সাহায্য করার পরামর্শ দেন। সরল বিশ্বাসে হাজেরা নবজাতককে ওই নারীর কাছে রেখে যান। কিছুক্ষণ পর তারা ফিরে এসে দেখেন নবজাতককে নিয়ে সটকে পড়েছেন অপরিচিত ওই নারী। পরে তাদের চিৎকার চেঁচামেচিতে টনক নড়ে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের। 
বিষয়টি কোতোয়ালী থানাকে জানালে নবজাতককে উদ্ধারে তৎপরতা শুরু করে পুলিশ। হাসপাতালের সিসিটিভি ফুটেজ দেখে নবজাতককে উদ্ধারে জোর প্রচেষ্টা অব্যাহত রাখে পুলিশ। দিনাজপুর পুলিশ সুপার মোহাম্মদ আনোয়ার হোসেনের নেতৃত্বে পুলিশের একটি চৌকস দল আজ মঙ্গলবার দুপুরে দিনাজপুর সদরের শেখপুরা ইউনিয়নের জয়দেবপুর শাহাপাড়া গ্রামে অভিযান চালায়। সেখান থেকে উদ্ধার করা হয় হাসপাতাল থেকে চুরি হয়ে যাওয়া শিশুটি। সেই সাথে আটক করা হয় শিউলী বেগম (২২) নামে এক নারীকে। শিউলী ওই এলাকার মোঃ মোস্তাফিজুর রহমান। মোন্তাফিজুর তার দ্বিতীয় স্বামী। শিউলী’র প্রথম ঘরে দু’টি সন্তান রয়েছে। মোস্তাফিজুরের সাথে দুই বছর আগে দ্বিতীয় বিয়ে হলেও এখনো সন্তান হয়নি।
লালন-পালনের উদ্দেশ্যেই নবজাতকটিকে কৌশলে হাসপাতাল থেকে শিউলী চুরি করেছিলো বলে প্রাথমিক জিঞ্জাসাবাদে জানিয়েছে।
হাসপাতাল থেকে নবজাতক চুরির ঘটনায় ব্যাপক তোলপাড় শুরু হলেও হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ঘটনার দায় চাপান নবজাতকের অভিভাবকদের ওপর। তিনি বলেন, অভিভাবকের  অসচেতনতার কারণে নবজাতকটি চুরি হয়। 
তবে,স্বজনদের অভিযোগ হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের দায়িত্ব অবহেলার জন্য নবজাতককে হারাতে হচ্ছিলো তাদের। 
হাসপাতালে কর্তব্যরত শিশু বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক জানান,শিশুটি সুস্থ ও ভালো আছে।

মন্তব্য করুন


Link copied